আমার আয়োন্তিকা

তোমার চুলের বেণী,আয়োন্তিকা,যেন সোনার সর্পিল ধারা।
আলোকিত কেশরাশি,সূর্যাস্তের রঙ মেখে নিবিড় অন্ধকারা।

তোমার বেণীর বাঁকগুলি,রূপকথার মায়া গড়া জাল,মিষ্টি ঘ্রাণে ভরিয়ে তোলে চারপাশ,প্রতিটি ক্ষণিক কাল।

স্বপ্নের বুননে মোড়া,তোমার চুলের ঐ বেণী,মায়াবী অন্ধকারে লুকানো,যেন রুপকথার গহনী।

আলতো বাতাসে খেলে যায়,সিক্ত সেই চুলের ঢেউ,অভিসারে জাগিয়ে তোলে প্রেম,হৃদয়ে স্নিগ্ধ সুরের লয়।

তোমার চুলের স্রোতে,হারিয়ে যায় সময়ের সীমানা,স্মৃতির পটে আঁকা,কল্পনার এক মিষ্টি কাননা।

আয়োন্তিকার বেণী যেন,কবির গানে ধরা দেবে,প্রশংসায় ভরিয়ে তুলবো,অনন্ত কালের ছোঁয়া নিয়ে।

তোমার চোখে আবেগের ছায়া,সৃষ্টির গহ্বর থেকে আলোকিত পাথর।
স্বপ্নে রঙিন ছন্নছাড়া,প্রেমের কাহিনী তোমার নতুন কবিতা।
আয়োন্তিকা,তোমার চোখে বিশ্ববিদ্যা।

আমার আয়োন্তিকা পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর ও সুদর্শন নারী,আয়োন্তিকার চোখে বিশ্ববিদ্যা।

মন্তব্য করুন